বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৬:১২ পূর্বাহ্ন
Logo
নোটিস :
আমাদের সাইট-এ প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে,যোগাযোগ করুন>> 01712-129297>>>01712-613199>>>01926-659742>>>

সবজির বাজারে আগুন, পুড়ছে পকেট!

জকিগঞ্জ প্রতিনিধি: / ১৯১ বার
আপডেটে : শনিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০২০

জকিগঞ্জ  প্রতিনিধি: সিলেটের জকিগঞ্জে সবজি বাজার দামে আগুন। আসছে শীতের মৌসুম। শীতের মৌসুম মানেই সবজির মৌসুম। এই মৌসুমে বাজারে সবজি খুবই সস্তা দামে পাওয়া যায়। বেড়েছে বিভিন্ন ধরনের সবজির সরবরাহ, তবুও দাম কমছে না সবজির।

বাজারে সবজির বাড়তি দামের কারনে এতে নাভিশ্বাস হয়ে উঠেছে নিন্ম ও মধ্যবিত্ত শ্রেণী মানুষ। প্রায় দুই মাস ধরে  সিলেটের জকিগঞ্জে সবজির বাজার অস্থির। লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়ে চলেছে সবজির দাম। ক্রেতাগন এর প্রেক্ষিতে কাঁচাবাজারগুলোতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করার আহবান জানাচ্ছেন। চলতি নভেম্বর মাসে আলু, কাঁচামরিচ ও পেঁয়াজের দাম নিয়ে চলেছে এলাহী কারবার।

সরেজমিনে বাজারে গিয়ে দেখা যায় ৬০ টাকার নিচে কোন সবজিই বাজারে নেই। বাজারের সবজি ব্যবসায়ীরা অতিরিক্ত বৃষ্টির অজুহাত দেখিয়ে পকেট কেটে যাচ্ছেন ক্রেতাদের। ১৩ থেকে ১৪ নভেম্বর  শনিবার পর্যন্ত জকিগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন সবজির বাজার ঘুরে দেখা যায়- সবজির দাম একটুও কমেনি বরং আরো বেঁড়েছে। জকিগঞ্জের পৌর বাজার, বাবুর বাজার, শরীফগঞ্জ বাজার, কালীগঞ্জ বাজারে আলু বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ৪৫ টাকায়।

অথচ সরকার কর্তৃপক্ষ আলুর দাম নির্ধারণ করে দিয়েছেন প্রতি কেজি ৩০ টাকা। মাঝে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে কিছু ব্যবসায়ীরা জরিমানা দিলেও বাকি ব্যবসায়ীরা অভিযানের তোয়াক্কা না করে যার যার খুুুশি মতো নিত্যপণ্যের জিনিস বিক্রি করে যাচ্ছেন।

বাজারে মিষ্টি কুমড়া ৬৫ টাকা, টমেটো ১০০ টাকা, ঢেঁড়স ১০০ টাকা, পটল ৮০ টাকা, লাউ ৫০ টাকা, বেগুন ৮০-৯০ টাকা, তিতকরলা ১০০ টাকা, ঝিঙ্গা ৯০ টাকা, শসা বরবটি ৮০ টাকা, গাজর ১২০ টাকা, কাঁচা পেঁপে ৫০ টাকা, ছোট কচু ৭০-৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কাঁচামরিচ প্রতিকেজি ১২০-১৬০ টাকা। কেউ কেই আবার কাঁচা মরিচের দাম ২০০ টাকা হাকানোর চেষ্টা করছেন।

শীতকালীন মুলা বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৭০ টাকা দরে। এছাড়া ফুলকপি ১০০ টাকা, বাঁধাকপি ৮০ টাকা, শিম ১০০-১১০ টাকা, ধনেপাতা ১৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

উপজেলার বারঠাকুরী ইউনিয়নের চাঁদপুর গ্রামের বাসিন্দা দিপংকর বিশ্বাস বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে সবজি। এর মধ্যে নতুন করে আরও দাম বেড়েছে। প্রায় ৮ আইটেমের সবজির কেজি ১০০ টাকা ছুঁয়েছে।

বাকি সবজিগুলোর বেশিরভাগের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকার কাছাকাছি। হঠাৎ সবজির এমন অস্বাভাবিক দাম বাড়ায় সম্প্রতি খুচরা সবজি ক্রেতারা হতাশ। নিত্যপণ্যের এমন চড়া দামে ক্রেতাদের মুখ থেকে শুধু হতাশার কথাই শোনা যাচ্ছে।

বাবুর বাজার এলাকার এক বাসিন্দা বলেন, অনেক দিন ধরেই সবজির দাম বেশি। আর এই সপ্তাহেও বাজারে সবকিছুর দাম আগুন। একশ টাকার সবজি কিনলে এক বেলাও ঠিক মতো হয়না আমাদের। এক সপ্তাহে শুধু সবজির পেছনেই দেড়-দুই হাজার টাকা খরচ হচ্ছে।

অবস্থা এমন দাঁড়িয়েছে আমাদের পক্ষে টেকাই মুশকিল হয়ে যাচ্ছে। আমাদের কপাল থেকে সবজি প্রায়ই উঠে গেছে। বেশিরভাগ সবজির কেজি একশ টাকা। এত দাম দিয়ে সবজি কি করে কিনব? হিসাব করে দেখলে সবজির থেকে এখন বয়লার মুরগি সস্তা।

কারণ বয়লার মুরগির কেজি ১২০ মধ্যে বিক্রি হচ্ছে। শরীফগঞ্জ বাজারের এক সবজি ব্যবসায়ী বলেন, সবজির দাম বাঁড়ায় আমরাও বিপাকে আছি। বিক্রি অনেক কমে গেছে। আবার সবজির দাম বেশি হওয়ার কারণে অল্প লাভে সবজি বিক্রি করতে হচ্ছে।

এছাড়া আড়ৎ থেকে সবজি আনার পর নষ্ট অনেক সবজি ফেলে দিতে হচ্ছে। সব মিলিয়ে অল্প পরিমান লাভ হচ্ছে। এ অবস্থা চলতে থাকলে এক সময় ব্যবসা বন্ধ করে দিতে হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com