বুধবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৭:৩২ পূর্বাহ্ন
Logo
শিরোনাম :
এবার করোনা টিকা দেয়া শুরু পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচনে লেখক সম্মাননা পেলেন সাংবাদিক ওয়াহিদ চৌধুরী কুশিয়ারা’র ২৪ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে সাংবাদিক এম. এ ওয়াহিদ চৌধুরীকে সম্মাননা প্রদান মণিরামপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ভাইকে পিটিয়ে জখম করে টাকা কেড়ে নেয়ার অভিযোগ নন্দীগ্রামে ৯টি ডাকাতি মামলার আসামি গ্রেফতার সিলেটের দক্ষিণ সুরমা থেকে এক কিশোরী নিখোঁজ সাবেক মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকীর নির্মাণাধীন মার্কেট গুড়িয়ে দিলেন ভ্রাম্যমাণ আদালত বাঘ আটক করেছে মেঘনা’র জনতা! টাইমস্কেলসহ সুযোগ-সুবিধা বহাল রাখার দাবিতে মাদারীপুরে শিক্ষকদের মানববন্ধন সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাব’র নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দকে মেট্রোপলিটন পুলিশে’র পক্ষ থেকে অভিনন্দন
নোটিস :
আমাদের সাইট-এ প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে,যোগাযোগ করুন>> 01712-129297>>>01712-613199>>>01926-659742>>>

ধর্ষণের শিকার কিশোরী অন্তঃস্বত্বা_- থানায় অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার: / ১২৪ বার
আপডেটে : বুধবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২০

 

পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার চরকাজল ইউনিয়নের চরশিবা গ্রামে রশিদ মোল্লা তার স্ত্রী ও সন্তান ফেলে ঢাকায় গিয়ে বিয়ে করেন। এর কিছু দিন পর মা সালমা বেগম অন্য আরেকজনকে বিয়ে করে বাউফল উপজেলার কালাইয়া এলাকায় চলে যান। সবাই থেকেও এ দম্পতির সন্তান কিশোরীটি একপ্রকার অনাথ হয়ে যায়। আশ্রয় জোটে মামা শহিদুল আকনের বাড়িতে।

মামা বাজারে বাজারে কলা বিক্রি করে পরিবার পরিজনের ভরণপোষন চালায়। শহিদুল আকনের ঘরে অন্য কেউ না থাকার সুযোগে প্রতিবেশী কামরুল আকন মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে কিশোরীকে। মেয়েটি এতে বাঁধা দিয়ে ব্যর্থ হয়। কাউকে এ ঘটনা না জানানোর জন্য ভয়ভীতি ও খৃুন করার হুমকিও দেয়া হয়। এর সাথে মেয়েটিকে দেয়া হয় বিয়ের আশ্বাস ।

প্রথম ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে ১০ এপ্রিল বিকালে। এভাবে বারবার ধর্ষিত হয়েছে অনাথ ১৬ বছরের এই কিশোরী।
মামলা এবং সংশ্লিষ্ট সূত্র এসব জানায়। সূত্র জানায়, এরই এক পর্যায়ে কিশোরীটি অন্তঃস্বত্বা হয়ে পড়ে।

বিজ্ঞাপন : মাদার ফার্মেসী

বিজ্ঞাপন : মাদার ফার্মেসী

কিশোরী হওয়ার কারনে গর্ভবতী হওয়ার বিষয়টি প্রথমে সে বুঝতে পারেনি। দুই মাস আগে তার শরীরে গর্ভের লক্ষন স্পষ্ট হয়ে ওঠে। মামি রাহিমা বেগম (৩২) বিষয়টি টের পেয়ে কিশোরীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। কিশোরী কোন কিছু গোপন না করে মামিকে সব কিছু বলে দেয়। মামি রাহিমা বেগম তার স্বামী শহিদুল আকনকে বিষয়টি জানায়।

গরীব বলে কিশোরীর মামা শহিদুল আকন স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের দারস্থ হয়। তারা কিশোরী ও ধর্ষণকারীর মধ্যে বিয়ে দিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে। তাদের এ প্রচেষ্টা ব্যর্থ হলে সোমবার ধর্ষিতা কিশোরী লিজা আক্তার ধর্ষক কামরুল আকনের (৩০) বিরুদ্ধে গলাচিপা থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে। ধর্ষক কামরুল আকন একই গ্রামের ছিদ্দিক আকনের ছেলে। গলাচিপা থানার মামলা নং ১৪।

এ ব্যাপারে গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম জানান, ধর্ষিতার ডাক্তারী পরীক্ষা এবং বয়স নিরুপনের জন্য পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। আসামিকে দ্রুত গ্রেফতার করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে তিনি জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com