শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ০২:০৫ অপরাহ্ন
Logo
নোটিস :
আমাদের সাইট-এ প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে,যোগাযোগ করুন>> 01712-129297>>>01712-613199>>>01926-659742>>>

জকিগঞ্জ শেওলা ও আটগ্রাম সড়কে শতাধিক গর্ত!

রহমত আলী হেলালী: / ৮৫ বার
আপডেটে : শনিবার, ১০ অক্টোবর, ২০২০

সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলা শহর থেকে জেলা শহরের সাথে যোগাযোগের প্রধান দু’টি জনগুরুত্বপূর্ণ সড়ক হচ্ছে জকিগঞ্জ-টু-শেওলা জিরোপয়েন্ট ও জকিগঞ্জ-টু-আটগ্রাম সড়ক। প্রতিদিন এ দু’টি সড়ক দিয়ে হাজার হাজার গাড়ি চলাচল করলেও সড়কে ছোট বড় শতাধিক গর্তে জনদুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে। সড়ক দু’টির একটু পরপর বড় বড় গর্তে প্রতিনিয়ত দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন যানবাহন চালক ও যাত্রীরা। চলতি বর্ষায় এই দুর্ভোগ আরো বেড়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, জকিগঞ্জ শহর থেকে শেওলার সড়ক পর্যন্ত মাত্র ২ কিলোমিটার সড়কে ছোট বড় অর্ধশতাধিক গর্তের সৃষ্ঠি হয়েছে। শেওলা সড়কের শুরু থেকে বেশীরভাগ সড়কে একের পর এক ছোট বড় গর্তে চরম আকার ধারণ করছে। বিশেষ করে ভুইয়ার বাজার সংলগ্ন মসজিদের পাশে বিশাল আকৃতির দু’টি গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ গর্ত দু’টিতে যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরণের দুর্ঘটনা। অপরদিকে জকিগঞ্জ আটগ্রাম সড়কের আটগ্রাম ষ্টেশনের উত্তরে ও রতনগঞ্জ বাজারের উত্তরে ছোট বড় গর্তের সৃষ্ঠি হয়েছে। ফুলতলী ব্রিকস ফিল্ড ও লামারগ্রাম এলাকায় রয়েছে অনেক গর্ত। বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টির পানি জমে গর্তগুলো ক্ষুদ্র ডোবায় পরিণত হয়ে পড়ে। এতে ভোগান্তির সীমা থাকেনা পথচারী ও চালকদের।

উপজেলা প্রকৌশলীর অফিস সূত্রে জানা গেছে, জকিগঞ্জ-টু-আটগ্রাম সড়ক ২০১৮ সালে এবং জকিগঞ্জ-টু-শেওলা জিরোপয়েন্ট সড়ক ২০১৭ সালে কার্পেটিং দ্বারা সংস্কার করা হয়েছিল। কিন্তু সংস্কারের ২/৪ বছরের মাথায় সড়কটির বিভিন্ন স্থানে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।

জকিগঞ্জ পৌরসভার হাইদ্রাবন্দ গ্রামের বাসিন্দা সাবেক পৌর কাউন্সিলর জোসনা খানম বলেন, জকিগঞ্জ বাজার থেকে শেওলা সড়ক পর্যন্ত দুই কিলোমিটার জায়গায় কার্পেটিং উঠে সড়কের বেহাল অবস্থা। অথচ এই দুই কিলোমিটার জায়গায় সরকারি হাসপাতাল ও উপজেলা পরিষদ ভবনের মতো গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা রয়েছে। সড়কের গুরুত্বপূর্ণ এই জায়গাটুকু সব সময় ভালো থাকার কথা থাকলেও তা সব সময় খারাপ থাকে।

১নং বারহাল ইউনিয়নের শাহবাগ এলাকার মহিদপুর গ্রামের বাসিন্দা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী পাপলু বলেন, সড়কে গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় উপজেলা সদরের সাথে যোগাযোগ এখন কঠিন হয়ে পড়েছে। মানুষের দুর্ভোগ লাগবে দ্রুত সড়ক দু’টি সংস্কার প্রয়োজন।

২নং বীরশ্রী ইউনিয়নের পশ্চিম জামডহর গ্রামের বাসিন্দা আব্দুস সামাদ চৌধুরী বলেন, আকাঁ-বাঁকা হওয়ায় জকিগঞ্জ-শেওলা সড়ক দিয়ে এমনিতেই চরম ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হয়। আর এ সড়কটি যখন ক’দিন পর পর কার্পোটিং উঠে গর্তের সৃষ্টি হয় তখন প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা ঘটতেই থাকে। চলতি বর্ষা মৌসুমে সড়কটির স্থানে স্থানে ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। দ্রুত সংস্কার কাজ করা না হলে মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠবে সড়কটি।

৩নং কাজলসার ইউনিয়নের কামালপুর গ্রামের বাসিন্দা মাহবুব মিসবা বলেন, সড়কটির বড় বড় গর্তের কারণে প্রতিনিয়ত আমাদের চলাচলে ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। দ্রুত সড়ক দু’টি মেরামত না করলে ক্রমেই চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়বে। তিনি সড়কটি মেরামতের জন্য সংশ্লিষ্ট মহলকে অনুরোধ জানিয়েছেন। অনুরূপভাবে উপজেলার খলাছড়া, জকিগঞ্জ, সুলতানপুর, বারঠাকুরী, কসকনকপুর ও মানিকপুর ইউনিয়নের একাধিক বাসিন্দা জানান, জকিগঞ্জ উপজেলার জনগুরুত্বপূর্ণ সড়ক হচ্ছে জকিগঞ্জ-শেওলা ও জকিগঞ্জ-আটগ্রাম সড়ক। এ দু’টি সড়ক দিয়েই আমরা প্রতিনিয়ত সিলেট যাতায়াত করি। কিন্তু সড়ক দু’টিতে ছোট-বড় অনেক গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় এখন ঝুঁকি নিয়ে চলালচল করতে হয়। তাই দ্রুত সড়ক দু’টি সংস্কার করা প্রয়োজন।

এ বিষয়ে জকিগঞ্জ উপজেলা উপ সহকারি প্রকৌশলী মোঃ তাজুল ইসলাম সরকার বলেন, সড়ক দু’টিতে অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় তা সংস্কারের জন্য প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। দেশব্যাপী বিশাল একটি প্রকল্পের আওতায় সড়ক দু’টি গেজেটভুক্ত হয়েছে। প্রস্তাবনা অনুমোদিত হলে এবং যথাযথভাবে বরাদ্ধ পাওয়া গেলে আমরা দ্রুত সড়ক দু’টি সংস্কার কাজ শুরু করতে পারবো বলে আশাবাদী।

বিজ্ঞাপন:: ড্রিম আর্ট ডিজিটাল

জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব লোকমান উদ্দিন চৌধুরী বলেন, আমরা পাঁচ বছর মেয়াদী একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। সে অনুযায়ী আমরা গুরুত্ব বিবেচনা করে ক্রমান্নয়ে সকল রাস্তা সংস্কার ও পাকাকরণ করবো।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিলেট-৫ (জকিগঞ্জ-কানাইঘাট) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব ড. হাফিজ আহমদ মজুমদার বলেন, আমাদের দেশের একটি দুর্বল দিক হচ্ছে কোন কাজের ক্ষেত্রে গুনগত মান ঠিক থাকেনা। বেশীর ভাগ ক্ষেত্রে নিম্নমানের কাজ হওয়ায় খুব অল্প সময়ে রাস্তা ভেঙ্গে যায়। অপরদিকে যে রাস্তায় ছোট ছোট গাড়ি চলাচল করার কথা সে রাস্তায় চলে ভারী যানবাহন। ইট, পাথর ও বালু নিয়ে বড় বড় ট্রাক ঢুকে পড়ে গ্রামীন রাস্তায়। এ কারণে খুব দ্রুত রাস্তাগুলো ভেঙ্গে যায়। তবে আমরা এ থেকে উত্তরণের পথ খুঁজছি এবং গুরুত্ব বিবেচনা করে সকল সড়ক সংস্কারের উদ্যোগ নিচ্ছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com