সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৭:১৬ অপরাহ্ন
Logo
শিরোনাম :
স্ত্রীর পাশে চিরনিদ্রায় সমাহিত ব্যারিস্টার রফিক-উল হক শাহগলী বাজার ব্যবসায়ী সমিতির নবনির্বাচিত কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন আবার শ্রাবণ বৃষ্টি আদমদিঘী সান্তাহারে এক কিশোরের জন্য দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেল মালবাহী ট্রেন। ভোটার কার্ডে দুই সন্তানের চেয়ে মায়ের বয়স কম, বয়স্ক ভাতা থেকে বঞ্চিত বৃদ্ধ এক মা! অতিরিক্ত পুলিশ সুুপার সুদীপ্ত রায়ের শারদীয় শুভেচ্ছা দুর্গাপূজায় জকিগঞ্জ থানা-পুলিশের শুভেচ্ছা বার্তা দুর্গাপূজা উপলক্ষে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সাবেল মোহাম্মদ রেজা’র শুভেচ্ছা হাসিমুখে আর দেখা হবেনা কোনদিন ওপারে ভালো থাকুন প্রিয় সেলিম ভাই “মেয়ে তুমি ঘুমোও”- সালমা তালুকদার
নোটিস :
আমাদের সাইট-এ প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে,যোগাযোগ করুন>> 01712-129297>>>01712-613199>>>01926-659742>>>

এমসি কলেজে ধর্ষণ: আরেক আসামি মাহফুজুর গ্রেপ্তার

স্টাফ রিপোর্টার: / ৭৯ বার
আপডেটে : সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সিলেটের এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে নববধূকে দলবেঁধে ধর্ষণের মামলার আরেক আসামি মাহফুজুর রহমান মাসুমকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে জৈন্তাপুরের হরিপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানিয়েছেন কানাইঘাট থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) স্বপন চন্দ্র সরকার।

মাহফুজ কানাইঘাটের দক্ষিণ বাণীগ্রাম ইউপির লামা দলইকান্দি গ্রামের বাসিন্দা সালিক আহমদ ছেলে।

বিজ্ঞাপন:: ড্রিম আর্ট ডিজিটাল

এ নিয়ে এ ঘটনায় প্রধান আসামিসহ সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হল।

শাহপরাণ থানার ওসি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী জানান, এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে গৃহবধূ ধর্ষণের মামলায় এ পর্যন্ত সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

“এর মধ্যে তিনজনকে আদালতের মাধ্যমে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। বাকিদের মঙ্গলবার আদালতে তোলা হবে।”

সিলেটে ধর্ষণ: সাইফুর, অর্জুন ও রবিউল রিমান্ডে

এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণের ৪ আসামি গ্রেপ্তার

গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে টিলাগড় এলাকার এমসি কলেজে স্বামীর সাথে বেড়াতে আসা ওই এক নববধূকে ক্যাম্পাস থেকে তুলে নিয়ে ছাত্রাবাসে ধর্ষণ করেন কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মী।

এ ঘটনায় শনিবার সকালে ধর্ষণের শিকার তরুণীর স্বামী বাদী হয়ে শাহপরাণ থানায় ছাত্রলীগ কর্মী সাইফুর রহমানকে প্রধান আসামি করে নয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন, এমসি কলেজ ছাত্রলীগ কর্মী সাইফুর রহমান, কলেজের ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র শাহ মাহবুবুর রহমান রনি, মাহফুজুর রহমান মাছুম, অর্জুন লস্কর ও বহিরাগত ছাত্রলীগ কর্মী রবিউল এবং তারেক আহমদ। এছাড়া অজ্ঞাতনামা তিনজনকেও আসামি করেন।

সোমবার মামলার প্রধান আসামি সাইফুর রহমান, অর্জুন লস্কর ও রবিউল ইসলামকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছে আদালত।

সিলেট মহানগর হাকিম দ্বিতীয় আদালতের বিচারক সাইফুর রহমান তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বলে জানিয়েছেন আদালত পুলিশের সহকারী কমিশনার অমূল্য কুমার চৌধুরী।

তিনি জানান, বেলা ১২টার দিকে সাইফুর রহমান ও অর্জুন লস্করকে আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাদের প্রত্যেকের পাঁচ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করে। পরে বেলা ৩টায় মামলার অপর আসামি রবিউল ইসলামকে আদালতে হাজির করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহপরাণ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্য প্রত্যেকের জন্য সাত দিন করে রিমান্ড আবেদন করলে আদালত পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে।

আদালতে আসামিদের পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না বলে নিশ্চিত করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী খোকন কুমার দত্ত।

রোববার সকালে মামলার প্রধান আসামি সাইফুর রহমানকে সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার মনতলা থেকে অর্জুন লস্করকেও গ্রেপ্তার করা হয়।

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ থেকে শাহ মো. মাহবুবুর রহমান রনিকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। আর নবীগঞ্জ থেকে রবিউল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এছাড়া দলবেঁধে ধর্ষণের ঘটনায় রাজন মিয়া এবং আইনুদ্দিন নামের আরো দু্ই ব্যক্তিকেও গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব; যাদের নাম মামলার এজাহারে উল্লেখ নেই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com