শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ০৩:০৬ পূর্বাহ্ন
Logo
শিরোনাম :
সুনামগঞ্জে এক ব্যক্তিকে গলাকেটে হত্যা, র‍্যাবের হাতে ৬ জন গ্রেফতার সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে চোরের হাতে পুলিশ খুন! জকিগঞ্জে ৭০২ পিস ইয়াবাসহ একজন আটক মাদারীপুরের ২৪ যুবক নির্মম নির্যাতনের শিকার, টাকা দাবি মাফিয়ার। মিরপুরে জায়গা জমি নিয়ে বিরোধ কোদাল দিয়ে হত্যার চেষ্টা; আটক -১ জৈন্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারকে জামায়াতের আর্থিক সহায়তা প্রদান প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রীসহ বিশিষ্ট জনকে নিয়ে কটুক্তি: যুবক আটক জকিগঞ্জে নিজ বসত ঘরে ডুকে হামলা,নারীসহ গুরুতর আহত-৪ আইন ও অপরাধ রিকশাওয়ালাকে নির্যাতন, সেই প্রভাবশালী আটক হাবিবুর রহমান চৌধুরী ফাউন্ডেশনের আত্মপ্রকাশ, ঈদ উপহার বিতরণ
নোটিস :
আমাদের সাইট-এ প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে,যোগাযোগ করুন>> 01712-129297>>>01712-613199>>>01926-659742>>>

‘চোর’ অপবাদে মা-মেয়েকে রশি দিয়ে বেঁধে ঘোরানো হয় প্রকাশ্য সড়কে

চকরিয়া প্রতিনিধি:: / ১৫৯ বার
আপডেটে : রবিবার, ২৩ আগস্ট, ২০২০

চকরিয়া প্রতিনিধি:: ‘চোর’ অপবাদে মা-মেয়েকে রশি দিয়ে বেঁধে ঘোরানো হয় প্রকাশ্য সড়কে কক্সবাজারের চকরিয়ায় বয়সী মা ও তরুণী মেয়েকে ‘গরু চোর’ আখ্যা দিয়ে একদল দুর্বৃত্ত নির্মমভাবে পেটানোর চিত্র ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে কোমরে রশি বেঁধে দুই নারীকে প্রকাশ্য সড়কে হাঁটিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। একপর্যায়ে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে পুলিশ এসে মা ও মেয়েকে উদ্ধার করে চকরিয়া হাসপাতালে ভর্তি করে।

শুক্রবার (২১ আগস্ট) দুপুরে হারবাং পহরচাঁদা এলাকায় এ ঘটনা ঘটলেও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঘটনার ছবি প্রকাশের পর এটি গতকাল শনিবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে সবখানে জানাজানি হয়।

মা ও মেয়ে চকরিয়া হাসপাতালে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের শারীরিক অবস্থা আশংকামুক্ত নয় বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

বিষয়ে জানতে চাইলে চকরিয়া থানার হারবাং পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ও পরিদর্শক আমিনুল ইসলাম জানান, শুক্রবার স্থানীয়রা ফাঁড়ি পুলিশকে খবরটি দেন। এর পর মা-মেয়েকে উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে পুলিশ।

তিনি আরো জানান, স্থানীয় এক ব্যক্তির গরু চুরির ঘটনায় তাদের অভিযুক্ত করা হয়েছে। অভিযুক্তদের মধ্যে মা-মেয়েসহ চারজনের বাড়ি পটিয়ার শান্তিরহাটে। অপরজনের বাড়ি পেকুয়ার লালব্রিজ এলাকায়।

কারা পিটিয়েছে এমন প্রশ্নে ইন্সপেক্টর আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘মা-মেয়েকে পেটানোর বিষয়ে এখনো কেউ অভিযোগ করেনি। খবর পেয়ে পুলিশ যখন ঘটনাস্থলে যায় তখন সেখানে প্রায় দুই শতাধিক মানুষ উপস্থিত ছিলেন। সেখান থেকে তাদেরকে আমাদের হেফাজতে নিয়ে আসাটাই প্রাধান্য দিয়েছি। তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করেছি।

চকরিয়া থানার ওসি মো. হাবিবুর রহমান বলেন, পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা করা হচ্ছে মা-মেয়ের। ভুক্তভোগী কেউ যদি অভিযোগ করে তাহলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে জড়িতদের বিরুদ্ধে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
Theme Created By ThemesDealer.Com